Skip to content

পার্থক্য না বুঝলে আমি বিরক্ত হই

June 8, 2018

বার্মা রাখাইনে রোহিঙ্গাদের জাতিগতভাবে নিশ্চিহ্ন করে দিতে চেয়েছিল কিনা, রোহিঙ্গাদেরকে তাদের আবাসভূমি রাখাইন অঞ্চল থেকে বিতাড়িত করতে নিপীড়ন ধর্ষণ ও হত্যার পরিকল্পিত পদক্ষেপ নিয়েছিল কিনা এই বিচারের জায়গাটা আন্তর্জাতিক অপরাধ বিচারের জায়গা এটা আমাদেরকে সবার আগে বুঝতে হবে। এবং এটা যদি আমরা বুঝতে পারি তাহলে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের মিয়ানমারের বিচার চাওয়ার সাথে একাত্ম হয়ে বাংলাদেশ সরকারের মিয়ানমারের বিচার চাওয়ার মধ্যে আর কোনো দ্বিধাই থাকতে পারে না।

বার্মার রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বাংলাদেশ থেকে মিয়ানমারে প্রত্যাবর্তনের দ্বিপাক্ষিক সমাধান প্রচেষ্টার সাথে আমরা যখন বার্মায় রোহিঙ্গাদের উপর সংঘটিত জনজাতিনিধনযজ্ঞের বিচার চাওয়াকে হুমকি মনে করি তখন বুঝতে হবে আমরা দুটোর মধ্যে পার্থক্য না ধরতে পেরে ভুল পন্থায় চিন্তার দিকে পা বাড়াচ্ছি।

আর এভাবে পার্থক্য না বুঝলে আমি বিরক্ত হই।

বাংলাদেশের সামনে স্পষ্ট পথ হল বার্মায় রোহিঙ্গাদের উপর সংঘটিত আন্তর্জাতিক অপরাধসমূহের বিচার করার যে সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রাথমিক পদক্ষেপে সেই সম্ভাবনার প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে বিচারের ক্ষেত্র প্রস্তুত করার সম্পূর্ণ সহযোগিতার দিকে অগ্রসর হওয়া।

আর রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রত্যাবর্তন ও প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক অবস্থানকে সমুন্নত রেখে বার্মার উপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়িয়ে এগিয়ে যাওয়া।

আমি চাই বাংলাদেশ কোনোভাবেই যেন বার্মায় রোহিঙ্গাদের উপর সংঘটিত আন্তর্জাতিক অপরাধের বিচার এবং রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রত্যাবর্তন ও প্রত্যাবাসনের বাংলাদেশ মিয়ানমারের যৌথ প্রচেষ্টার সমঝোতা স্মারককে গুলিয়ে না ফেলে।

বাংলাদেশ উভয় পথেই নিজেকে উচ্চকিত রাখবে এটাই ঠিক কূটনীতি কারণ বার্মা যেমন রোহিঙ্গাদের উপর সংঘটিত আন্তর্জাতিক অপরাধে অপরাধী তেমনি বার্মাকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রত্যাবর্তন ও প্রত্যাবাসনও করতেই হবে।

কমিউনিটি ব্লগে : রোহিঙ্গাদের উপর সংঘটিত জনজাতিনিধনযজ্ঞের বিচার এবং রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রত্যাবাসন দুই পথেই চলতে হবে বাংলাদেশের কূটনীতি

Advertisements
6 Comments
  1. masud karim permalink

  2. masud karim permalink

  3. Atrocities against Rohingya: ICC forms pre-trial chamber
    http://today.thefinancialexpress.com.bd/last-page/atrocities-against-rohingya-icc-forms-pre-trial-chamber-1561572409

    The International Criminal Court (ICC) has constituted pre-trial Chamber-III demonstrating further progress over ongoing process to look into the atrocities committed against the Rohingyas, reports UNB.

    The Chamber is composed of Judge Robert Fremr, Judge Olga Herrera Carbuccia and Judge Geoffrey Henderson, according to a media release issued by ICC on Wednesday.

    This decision follows a notice by the ICC Prosecutor FatouBensouda informing the Presidency of her intention to submit a request for an authorisation to open an investigation into this Situation.

    Bangladesh is now hosting over 1.2 million Rohingyas and most of thgem entered Bangladesh since August 25, 2017 amid military crackdown on them in Rakhine State of Myanmar.

    The Prosecutor has notified judges that she will seek an authorisation “to investigate alleged crimes within the Court’s jurisdiction in which at least one element occurred on the territory of Bangladesh – a State Party to the Rome Statute since 1 June 2010 – and within the context of two waves of violence in Rakhine State on the territory of the Republic of the Union of Myanmar, as well as any other crimes which are sufficiently linked to these events”.

    Once the Prosecutor submits her request, it will then be for the Judges of Pre-Trial Chamber III to decide whether or not to authorise the Prosecutor to open an investigation into the Situation.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: